শেষ বসন্ত উৎসব

দেবস্মিতা নাগ
বিশ্ববিদ্যালয়ে এটাই শেষ বসন্ত। “বসন্তের এই ললিত রাগে বিদায় ব্যথা লুকিয়ে জাগে ফাগুন দিনে গো” এই দুকলি বার বার করে মনের মধ্যে কোথাও বেজে উঠছে অমৃতার। আর মাত্র কটা মাত্র দিন ,তার পরেই তো জীবনটা কতখানি পাল্টে যাবে।

শান্তিনিকেতনের এই আম্রকুঞ্জ, এই সবুজ ছায়া, এই লাল পথ, সব ছেড়ে সে চলে যাবে অনেক দূরে।প্রথমে চুঁচুড়ায় নিজের বাড়ি আর তার পরেই মাত্র ৬ মাসের অপেক্ষা। সে চলে যাবে সেই সুদূর নিউজিল্যান্ডে। তার যে বিয়ে। শুধু আর মাস দুয়েকের অপেক্ষা। তার হবু স্বামী সেখানকার আইটি ইঞ্জিনিয়ার। আপাতত বছর পাঁচেক তো সেখানেই।তার পর জানা নেই।

অমৃতার ইচ্ছে ছিল, নিজের একটা গানের স্কুল খুলবে বাড়িতেই। কিন্তু তার জন্যে তো সময় লাগবে।সময়ই তো নেই। একদমই নেই। বাড়িতে ছোট বোন আছে। সবে উচ্চমাধ্যমিক। বাবার পেনশনটুকুই যা ভরসা। ডাক্তার একরকম জবাব দিয়েই দিয়েছে। এই অবস্থায় মায়ের মাথায় ঠিক কতটা চিন্তা, সেটা বোঝার ক্ষমতা অমৃতার হয়েছে।

জীবনটা একদমই পাল্টে যাবে আর কদিনের মধ্যে। ঠিক কতখানি পাল্টে যাবে সে নিজেও জানে না।এসব ভাবতে ভাবতেই বসন্ত এসেই গেল। শীতের শেষে এক বিয়ে বাড়িতে অনিরুদ্ধর অমৃতাকে দেখে পছন্দ হয়েছিল। বাড়িতে মা অমৃতার মতামত জানতে চেয়েছিলেন। প্রথমে অনিচ্ছা থাকলেই শেষটায় সব দিক বিবেচনা করে অমৃতা সম্মতি জানায়। বিয়ে একরকম পাকা। পাত্রপক্ষ দেরি করতে চায় না। তাঁরা বৈশাখ মাসেই একটা বিয়ের দিন স্থির করেছেন।

ফাল্গুন মাস। আম্রকুঞ্জ উৎসবে মেতে উঠেছে। “হোরিখেলা” কবিতাটির নৃত্যনাট্য হবে। তারই মহড়া চলছে। মহড়ার ফাঁকে চা-এর বিরতি। মৃন্ময় অমৃতাকে জিজ্ঞেস করলো, “তুই decide করে ফেলেছিস? একদম ফাইনাল? আরেকটু সময় নিলে পারতিস”।
অমৃতা বললো, “কি হবে সময় নিয়ে? কাউকে সময় দেওয়ার তো ব্যাপার নেই। নিজে নিজে সময় নিয়ে কী ভাববো। আমার যা পরিস্থিতি, বিয়ে একটা করে ফেলাই ভালো। করতেই যখন হবে…”

মৃন্ময় দীর্ঘনিঃশ্বাস ফেলে বললো, “আর তোর গানের স্কুল?”
অমৃতা বললো,”গানের স্কুল তো পরেও করা যাবে।situation এই মুহূর্তে একটা বিয়ে demand করছে, বুঝলি।”

মৃন্ময় অবাক হয়ে বললো, “তুই এতো calculative!”
অমৃতা দৃঢ় ভাবে বললো, “পরিস্থিতি অনেক হিসেব নিকেশ করা শিখিয়ে দেয়।”

এক পশলা বসন্ত বাতাস এসে ওদের মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে গেল। বাতাসে মেশানো আম্রকুঞ্জের ভারী গন্ধ পরিস্থিতি পাল্টে দিল। হঠাৎ সেই পরিস্থিতি তৈরি হলো, যা সব হিসেবনিকেশ ওলট-পালট করে দেয়। মৃন্ময় ভায়োলিনে ছড় টানলো “কতবার ভেবেছিনু আপনা ভুলিয়া তোমারো চরণে দিব হৃদয় খুলিয়া।”

অমৃতা গলা মেলালো “ভেবেছিনু মনে মনে দূরে দূরে থাকি, চিরজন্ম সঙ্গোপনে পূজিব একাকী”।
ছড় থামলো। অমৃতা বললো, “মৃন্ময় বসন্ত আসে, আবার চলেও যায়। আজ এই আবহে দাঁড়িয়ে মন যা চাইছে, সেই চাওয়াটা কিন্তু ভবিষ্যতের প্রয়োজন মেটাবে না। তাই “কেহ জানিবে না মোর গোপন প্রণয়, কেহ জানিবে না মোর অশ্রু বারিচয়”। তুই নিজেকে আরো সময় দে। খুব বড় হ। সফল হ,এগিয়ে যা। শেষ বসন্ত উৎসবের স্মৃতিটুকু নিয়ে বাকি পথ আমি হেঁটে চলে যাব। বিদায়।

আমাদের পাশে থাকুন

আমজনতাই আমাদের চালিকা শক্তি। আপনার সামান্য অনুদান আমাদের চলার পথে সাহস জোগাতে পারে।

ইচ্ছুকরা এই অ্যাকাউন্টে অনুদান পাঠাতে পারেন :
Bank Name : Bank of Baroda
A/C Name : Kolkata News Today
A/C No. 30850200000526
IFSC Code : BARB0MADHYA

GSTIN : 19AJEPM5512C1ZI
Email : kolkatanewstoday@gmail.com

সবাই যা পড়ছেন

Ghatal : জলে ভাসছে ঘাটালের বিস্তীর্ণ অংশ, দুর্গত এলাকায় সুব্রত মুখার্জি

বিশেষ প্রতিনিধি : ২ দিনের টানা বর্ষণে প্লাবিত হয়ে পড়েছে ঘাটাল (Ghatal), দাসপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা। এই নজিরবিহীন বিপর্যয়ের জন্য কেন্দ্রকে দায়ী করেছেন...

Babul BJP : ফের ডিগবাজি বাবুলের, বললেন, “রাজনীতি ছাড়ছি, তবে সাংসদ থাকছি”

ফের ডিগবাজি বিজেপি (BJP) সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র (Babul Supriya)। রাজনীতি এবং সাংসদ পদ ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন বাবুল। সোমবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি...

East Bengal : আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গল, সমর্থকদের স্বস্তি দিয়ে ঘোষণা মমতার

লক্ষ লক্ষ ইস্টবেঙ্গল (East Bebgal) সমর্থকের মুখে হাসি ফুটিয়ে স্বস্তির বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। যাবতীয় বিতর্ক দূরে সরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী...

Kolkata : দাঁড়িয়ে বর্ষার জল, ম্যানহোলের ভিতরে মিলল বালির বস্তা, লেপ, তোষক

বৃষ্টির পর ২ দিন কেটে গেলেও কলকাতার বিভিন্ন এলাকা এখনও জলে ভাসছে। এর মধ্যেই রবিবারম্যানহোলে মিলল বালির বস্তা, ইট, লেপ তোষক। ড্রেন...

Olympic Sindhu : পরপর দুই অলিম্পিকে পদক, অনন্য নজির সিন্ধুর

পরপর দুটি অলিম্পিকে (Olympic) পদক জয়ের নজির গড়লেন পি ভি সিন্ধু (P V Sindhu)। গত অলিম্পিকে জিতেছিলেন রুপো। এবার টোকিও অলিম্পিকে জিতলেন...