হোম অন্যান্য এক মুঠো শান্তির খোঁজে বিয়াসের দেশে

এক মুঠো শান্তির খোঁজে বিয়াসের দেশে

দীপঙ্কর বসু
হেমন্তের বিকেলে ঝরা মেপল পাতায় লাল হয়ে যাওয়া সুদূর ইতালীর এক অচেনা পথ। পথের বাঁকে দাঁড়িয়ে আছে ফোর্নো (FORNO) রেস্তোরাঁ। ভীষণ মায়াবী দেখাচ্ছিল। আকর্ষণ উপেক্ষা করতে পারলাম না। চারদিকে সবুজের সমারোহ। এ কোন প্রকৃতি! আমি তখন আর এক কোণে নিরালায় রেস্তোরাঁর আরাম কেদারায় হেলান দিয়ে চোখ বুজলেই স্মৃতিপটে ভেসে ওঠে সুদূর ভারতের বিপাশার তীর।

মনে হয় আবার ছুটে যাই সেই সবুজ উপত্যকায়। শুধু সবুজ আর সবুজ, উফ!! এ এক পরম শান্তি!! এই সবুজের পরশে, ইতালিয়ান চা পানের মাঝে শুনতে পাই চিরন্তন প্রেয়সী-বিয়াস কলতান করে বলছে আমাকে কিন্তু ভুলে যেও না!! আমি মনে মনে বলি-তুমি তো বড্ড হিংসুটে গো!!

এই যে এতক্ষণ তোমাকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়ে এলাম, তার বেলা!! তুমিই তো আমার ভালোবাসা, ভালোলাগার সব কিছু। তোমাকে আমি ভুলতে পারি! তোমার টানেই তো ছুটে আসি বারে বারে!!

জন্ম উত্তরবঙ্গে। তাই সেই ছেলেবেলা থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘাকে খুব সহজেই কাছে পেয়েছি। কিন্তু ট্যুরিস্ট হিসেবে কাঞ্চনজঙ্ঘা আমাকে নিরাশ করেছে বহুবার। বহু প্রতীক্ষার পরও মেলেনি দেখা।
কতবার মহারাজের দর্শন না পেয়ে বিফল মনোরথে ফিরে এসেছি!! আর বাদবাকি উত্তরবঙ্গকে আমার একই রকম লাগে!

আপনারা উত্তরপ্রেমীরা আবার যেন আমার গিন্নির মতো রেগে যাবেন না! তিনি তো এই কথা শুনে আমাকে মাঝে মাঝেই বলে, তুমি একটা খ্যাপা পাগলা! কি পাও বিয়াসের দেশে! আমি বলি ও তুমি বুঝবে না- খুঁজি আমি পরশ পাথর!!
বিশ্ব কবির কথায় তাকে বলি–

“মাথায় বৃহৎ জটা, ধুলায় কাদায় কটা,
মলিন ছায়ার মতো ক্ষীণ কলেবর।
রাজ সম্পদের লাগি নহে সে কাতর,
একবার পেতে চায় পরশ পাথর!!”

মায়াবী ইতালীয় রেস্তোরাঁয় বসেও স্বদেশের ভুবনমোহিনী সেই রূপের কথা ভাবতে ভাবতে হঠাৎই পাহাড়ী সন্ধ্যা নেমে এলো। পাহাড়ে ঠিক এমনি করেই সূর্য হঠাৎ দিগন্তে লুকিয়ে পড়ে। উপত্যকায় নেমে আসে রাত। সেই রাতটা ছিল দীপাবলির রাত। ইতালীর রেস্তোরাঁয় ভারতীয় হোটেল ম্যানেজারের দীপাবলির শুভেচ্ছা মনে করিয়ে দিল সহস্র ক্রোশ দূরে আলোকমালায় সেজে ওঠা আমার স্বদেশের উৎসবময়ী রূপকে।

আমি তো ভগবান কে প্রশ্ন করি,তুমি আমাকে সুন্দর আকাশ, সুন্দর একটা সকাল ক্ষণিকের জন্য দিয়েছো! কিন্তু এত অন্ধকারময় রাত কেন দাও, যা কিনা শেষ হতেই চায় না! আমাকে একবার একটা সুন্দর রাতের ঠিকানা দাওনা প্রভু! আসলে আমি সব কিছুই একটু দেরীতে পাই।

আজ আমি অনেকটা পেয়েছি। চায়ে চুমুক দিতে দিতে এবার একটু আনমনা হয়ে গেছি। মনে মনে “শচীন দেববর্মনের” দু কলি গান গাইছি- “লেগেছে চোখের নেশা–দিক ভুলেছি আমি!” আস্তে আস্তে পাহাড় অন্ধকারের দিকে ঢলে পড়ছে। পাহাড়ে রাত এভাবেই ঝুপ করে নেমে আসে। অন্ধকারের মাঝে হঠাৎ পাহাড় জুড়ে আলো ঝলমল করে উঠলো!

পাহাড় যেন বলে উঠলো, পৃথিবীর অভিশপ্ত রাত বিদায় হোক-নতুন আলোর উদয় হোক! আমি তো মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে গেছি, রাতের এ কি রূপ দেখছি আমি! কথা হারিয়ে ফেলি। মনে মনে বলে উঠলাম, ইউরেকা! ইউরেকা! খ্যাপা পেয়েছে পরশ পাথরের সন্ধান! আমার আর কোনো আক্ষেপ নেই! ভগবান কে শতকোটি প্রনাম জানিয়ে বললাম, হে প্রভু আমি এরকম একটি রাত্রি তো চেয়েছি!!

এবার ওঠার পালা, চললাম হোটেলের পানে। নিবিড় নিস্তব্ধ বনানীর মাঝে আমি একাকী, এই নৈসর্গিক সৌন্দর্য্যের ভাগ আমি কাউকে দেব না!! এটা আমার একান্তই নিজের!!

সবাই যা পড়ছেন

Kolkata Citizens felicitate World’s oldest living man Swami Sivananda

Partha Roy: Citizens of Kolkata honoured 126 year old Padma Shree Swami Sivananda, world's oldest living man by organising a grand reception...

Bimal Kar: বিমল করের জন্মশতবর্ষে সাহিত্য অ্যাকাডেমির শ্রদ্ধার্ঘ্য

সাহিত্যিক বিমল করের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে কলকাতায় সাহিত্য অ্যাকাডেমির পূর্বাঞ্চলীয় কার্যালয়ে ২৬ জুন এক আলোচনা চক্রের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানে সাহিত্য অ্যাকাডেমির সচিব...

বিদ্যুৎ দফতর: ভুল ক্যালেন্ডার ছাপিয়ে গ্রাহকদের লক্ষ লক্ষ টাকার অপচয়

প্রতি বছরই লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে ক্যালেন্ডারের বরাত দেয় রাজ্য বিদ্যুৎ দফতরের অন্যতম সংস্থা WBPDCL. এবারও তাঁর ব্যতিক্রম ঘটেনি। তবে চলতি...

ডালহৌসি অ্যাথলেটিক ক্লাবের নয়া জার্সির উন্মোচনে তারকার হাট

১৪২ বছরের ঐতিহ্যবাহী ডালহৌসি অ্যাথলেটিক ক্লাব কলকাতা লিগে খেলার জন্য নিজেদের নতুন জার্সির উন্মোচন করল। ২০১৫-১৬ বর্ষে কলকাতা ফুটবল লিগের প্রথম ডিভিশনে...

কোর্টের নির্দেশ অগ্রাহ্য, কলকাতার বুকে জোর করে বাড়ি ভাঙার অভিযোগ

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও খাস কলকাতার বুকে একটি বেসরকারি সংস্থার বিরুদ্ধে জোর করে বাড়ি ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল। অভিযোগকারীরা জানিয়েছেন, মধ্য...