হোম আন্তর্জাতিক Corona : আপাতত বিপন্ন মানুষকে বাঁচানোই ইষ্ট হোক বিশ্বের

Corona : আপাতত বিপন্ন মানুষকে বাঁচানোই ইষ্ট হোক বিশ্বের

tirthankarতীর্থঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়

(অর্থনীতি ও রাজনীতির ছাত্র একদা সাংবাদিক তীর্থঙ্কর দীর্ঘ দু’ দশক লন্ডন প্রবাসী। এই পোর্টালের জন্য শুধুমাত্র তিনি কলম ধরলেন।)

ভাত ছড়ালে কাকের অভাব হয় না। টাকা ছড়ালেও তাই। কাকের মতো বিপন্ন মানুষও এখন ভাত আর টাকার জন্য হাঁ-হুতাশ করছেন। নিশ্চিন্ত-নিরাপত্তায় বসে সেই যন্ত্রণা অনুধাবন করা সম্ভব নয়।

অর্থনীতির প্রাথমিক পাঠে জেনেছিলাম, Too much money chasing too few goods. মুদ্রাস্ফীতির এটাই প্রধান কারণ। পরে দেখেছি, ব্যাপারটা ঠিক ততটা সরল নয়।

পরে আবার উন্নয়নমূলক অর্থনীতির পাঠ্যবইয়ে দেখেছি, “Inflation is the engine of growth”। দাম বাড়লেই উৎপাদক উৎপাদনের এবং বিক্রেতা বিক্রির উৎসাহ পাবেন।

তার মানে কি দাম কমার থেকে দাম বাড়া ভালো? এই ব্যাপারটাও ঠিক ততটা সরল নয়। তবে deflation বা stagflation-এর তুলনায় বোধহয় inflation কিঞ্চিৎ কাম্য।

মাত্রাছাড়া মুদ্রাস্ফীতি হলে অবশ্য বস্তায় করে টাকা নিয়ে বাজারে গিয়ে থলিতে ভরে বাজার করে ফিরতে হবে।

মহামন্দা এবং যুদ্ধ-পরবর্তী বিশ্বে এক নতুন অর্থনৈতিক দিশার সন্ধান দিয়েছিলেন মহামতি জন মেইনার্ড কেইন্স। দিয়েছিলেন সরকারি ব্যবস্থাপনায় টাকা খরচের প্রস্তাব। এতে যাদের আয় হবে তারা সেই অর্থ দিয়ে জিনিসপত্র কিনলে চাহিদা বাড়বে।

এটাই কেইন্সের demand-determined model-এর ভিত্তি। বাড়তি চাহিদাই টেনে তুলবে ঝিমিয়ে পড়া অর্থনীতিকে। ছাদনাতলায় নববধূ যেমন বিয়ের জোড়বাঁধা বরটিকে জীবনপথে এগিয়ে নিয়ে যায়।

যুগান্তকারী এই পরিবর্তনে হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছিল কুঁকড়ে যাওয়া দুনিয়া। টাইম থেকে ইকোনমিস্ট, সব প্রচ্ছদেই জায়গা করে নিয়েছিলেন স্বল্পকেশ, হাল্কা গোঁফওয়ালা মানুষটি। বিপরীত মেরুর মিল্টন ফ্রিডম্যান থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সন সকলেই একসুরে গলা মিলিয়েছিলেন, “We are all Keynesians now” স্লোগানে।

দেদার টাকা ছাপিয়ে খরচ করার বহরে একদিন মুদ্রাস্ফীতির ঝুঁকি উঁকি দিতে শুরু করলো। সমালোচনার মুখোমুখি হলেন কেইনস। সমালোচকরা বলতে শুরু করলেন, দীর্ঘমেয়াদে মুদ্রাস্ফীতির বিপদের কী হবে?

আজীবন কোনো কিছুকেই পাত্তা দেননি তিনি। রেলবোর্ডের প্রধান থেকে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা – কোনও কিছুই চ্যালেঞ্জ মনে হয়নি তাঁর। বাসি বিছানায় বসে শেয়ারবাজারে ফাটকা খেলা আর প্রতি সন্ধ্যায় রুশ স্ত্রীকে নিয়ে মঞ্চে ব্যালে নাচ, এই দুটো কাজেই বেশি মন ছিল ওঁর।

স্বভাবতই কোনো সমালোচনাই গায়ে মাখতেন না। দীর্ঘমেয়াদে মুদ্রাস্ফীতির বিপদের কী হবে? জবাবে বলেছিলেন, “In the long-run we are all dead.”

আজ কি আবার বলার সময় এসেছে – “We should be all Keynesians now”। Long run-এর কথা দীর্ঘমেয়াদে ভাবা যাবে। আপাতত বিপন্ন মানুষকে বাঁচানোই ইষ্ট হোক বিশ্বের।

আমাদের পাশে থাকুন

আমজনতাই আমাদের চালিকা শক্তি। আপনার সামান্য অনুদান আমাদের চলার পথে সাহস জোগাতে পারে।

ইচ্ছুকরা এই অ্যাকাউন্টে অনুদান পাঠাতে পারেন :
Bank Name : Bank of Baroda
A/C Name : Kolkata News Today
A/C No. 30850200000526
IFSC Code : BARB0MADHYA

GSTIN : 19AJEPM5512C1ZI
Email : kolkatanewstoday@gmail.com

সবাই যা পড়ছেন

Ghatal : জলে ভাসছে ঘাটালের বিস্তীর্ণ অংশ, দুর্গত এলাকায় সুব্রত মুখার্জি

বিশেষ প্রতিনিধি : ২ দিনের টানা বর্ষণে প্লাবিত হয়ে পড়েছে ঘাটাল (Ghatal), দাসপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা। এই নজিরবিহীন বিপর্যয়ের জন্য কেন্দ্রকে দায়ী করেছেন...

Babul BJP : ফের ডিগবাজি বাবুলের, বললেন, “রাজনীতি ছাড়ছি, তবে সাংসদ থাকছি”

ফের ডিগবাজি বিজেপি (BJP) সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র (Babul Supriya)। রাজনীতি এবং সাংসদ পদ ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন বাবুল। সোমবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি...

East Bengal : আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গল, সমর্থকদের স্বস্তি দিয়ে ঘোষণা মমতার

লক্ষ লক্ষ ইস্টবেঙ্গল (East Bebgal) সমর্থকের মুখে হাসি ফুটিয়ে স্বস্তির বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। যাবতীয় বিতর্ক দূরে সরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী...

Kolkata : দাঁড়িয়ে বর্ষার জল, ম্যানহোলের ভিতরে মিলল বালির বস্তা, লেপ, তোষক

বৃষ্টির পর ২ দিন কেটে গেলেও কলকাতার বিভিন্ন এলাকা এখনও জলে ভাসছে। এর মধ্যেই রবিবারম্যানহোলে মিলল বালির বস্তা, ইট, লেপ তোষক। ড্রেন...

Olympic Sindhu : পরপর দুই অলিম্পিকে পদক, অনন্য নজির সিন্ধুর

পরপর দুটি অলিম্পিকে (Olympic) পদক জয়ের নজির গড়লেন পি ভি সিন্ধু (P V Sindhu)। গত অলিম্পিকে জিতেছিলেন রুপো। এবার টোকিও অলিম্পিকে জিতলেন...