হোম বিজ্ঞান ফটোক্রোমাটিক লেন্স শুধু ফ্যাশন নয়

ফটোক্রোমাটিক লেন্স শুধু ফ্যাশন নয়

ডা. পূর্ণেন্দুবিকাশ সরকার

বাস থেকে নেমে রোদের মধ্যে হাঁটতে হাঁটতে আমি আর সুনন্দ অফিসে ঢুকলাম। আমাদের দুজনের চোখেই অল্প পাওয়ারের চশমা। রোদের হাত থেকে বাঁচতে আমি আমার চশমার পাওয়ার দিয়ে বানানোর সানগ্লাসটা পরেছি। সুনন্দর চোখেও সানগ্লাস। কালো কাচে ঘেরা অফিসের ভিতরে কিছুই ভালোভাবে দেখা যাচ্ছিল না বলে আমি সানগ্লাস খুলে সাধারণ চশমাটা পরে নিলাম। অথচ সুনন্দর সানগ্লাসটা একটু পরেই স্বচ্ছ হয়ে গেল। আমার অবাক মুখের দিকে তাকিয়ে সুনন্দ গর্ব করে বলল ‘ব্রাদার, এটা ফটোক্রোমাটিক লেন্সের চশমা, এর ব্যাপারই আলাদা।’

ফটোক্রোমাটিক লেন্সের আবিষ্কার চশমার জগতে এক আলোড়ন। নানা কাজে বাইরে ঘোরাঘুরি করবার সময় অনেকেই সানগ্লাস ব্যবহার করেন, কিন্তু সেই চশমা পরে ঘরের ভিতরে প্রায় কিছুই দেখা যায় না। ফটোক্রোমাটিক লেন্স ঘর আর বাইরের দুনিয়ায় সাবলীল বিচরণের দরজা খুলে দিয়েছে।

ফটোক্রোমাটিক লেন্সকে অনেক সময় Transition লেন্স বলা হয়। কেউ কেউ আবার বলেন ‘ডে-নাইট’ চশমা। এটি বিশেষ ধরনের চশমার কাঁচ বা প্লাস্টিক যা সূর্যের আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মির (Ultra Violet Ray) প্রভাবে কালো, ধূসর বা অন্য কোনো রঙে পরিবর্তিত হয়ে যায়। কিন্তু স্বাভাবিক আলোতে বা অন্ধকারে আবার স্বচ্ছরূপ ফিরে পায়।

1960 সালে Roger Araujo ফটোক্রোমাটিক লেন্স আবিষ্কার করেন। সেগুলি ছিল কাঁচের এবং কেবল মাত্র ধূসর রঙেরই হত। সেজন্যে এদের বলা হত ‘ফটো-গ্রে’ (Photo Gray) লেন্স। 1990 সালে প্রথম প্লাস্টিকের ফটো-গ্রে লেন্সের প্রচলন শুরু হয়।

বর্তমানে নানা রঙের প্লাস্টিক ফটোক্রোমাটিক লেন্স চশমায় বা স্নানগ্লাসে ব্যবহৃত হয়। বাইফোকাল, প্রোগ্রেসিভ কিম্বা হাই-ইনডেক্স সব ধরনের লেন্সেই ফটোক্রোমাটিক বৈশিষ্ট ব্যবহার করা যায়। বর্তমানে এই গুণসম্পন্ন লেন্সই সর্বাধিক প্রচলিত।

ফটোক্রোমাটিক লেন্স কিভাবে কাজ করে?
ফটোক্রোমাটিক লেন্স কাঁচ, পলিকার্বোনেট বা প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি হতে পারে। এই লেন্সে Silver Halides নামে এক ধরনের আলোকসংবেদী ক্রিস্টাল ব্যবহার করা হয়। Silver Halides মূলত Silver-এর সঙ্গে Bromine, Chlorine বা Iodine-এর রাসায়নিক বিক্রিয়ায় তৈরি একপ্রকার যৌগ বা মিশ্র পদার্থ।

Silver Halide নামের এই স্বচ্ছ যৌগটি আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মির প্রভাবে ভেঙে গিয়ে অস্বচ্ছ আকার ধারণ করে। কিন্তু সাধারণ আলোতে আবার পূর্বের অবস্থায় ফিরে যায়। চশমার ক্ষেত্রে Silver-এর সঙ্গে Chlorine-এর যৌগ (Silver Chloride) ব্যবহার করা হয়। কাঁচের ভিতর Silver Chloride-এর অসংখ্য সূক্ষ্ম আনুবীক্ষণিক ক্রিস্টাল বসানো থাকে।

সূর্যের আলোয় প্রচুর আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি থাকে, যা সাধারণ বা কৃত্রিম আলোতে থাকে না। এই Silver Chloride-যুক্ত কাঁচ সূর্যের আলোর সংস্পর্শে এলেই ধূসর বা কালো হয়ে যায়।

পলিকার্বোনেট বা প্লাস্টিকের ক্ষেত্রে Silver Halides-গুলি লেন্সের পৃষ্ঠ তলের (Surface Layer) নীচে সমানভাবে বসানো থাকে। এই আলোক সংবেদী এই রাসায়নিক যৌগগুলির বিক্রিয়া তাপমাত্রার উপর নির্ভরশীল। গরম আবহাওয়ায় ফটোক্রোমাটিক লেন্স কম কালো হয়, অথচ ঠান্ডায় বেশী কালো হয়ে যায়।

আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে গরমের চাইতে ঠাণ্ডায় বেশি সময় লাগে। সেইজন্য ফটোক্রোমাটিক লেন্সের সানগ্লাসকে সত্যিকারের রোদচশমা বলা যায় না। ফটোক্রোমাটিক লেন্সে ঔজ্জ্বল্য প্রতিরোধক আবরণ বা Anti Reflection Coating দেওয়া থাকলে, সেটি কম আলোয় বা উজ্জ্বল আলোয় বেশি কাজ করে। Anti Reflection Coating-এর জন্য লেন্সের মধ্যে দিয়ে বেশি আলো চলাচল করতে পারে। ফলে দৃশ্যবস্তুকে বেশি স্পষ্ট দেখায়। আবার উজ্জ্বল আলোতে লেন্সের বিরক্তিকর প্রতিবিম্বকেও দূর করে।

ফটোক্রোমাটিক লেন্স সানগ্লাসের মত কালো হতে কত সময় লাগে?

চশমার লেন্স কতটা পুরু এবং উপাদানের উপরই ফটোক্রোমাটিক লেন্সের কার্যকারিতা নির্ভর করে। উন্নত ধরনের ফটোক্রোমাটিক লেন্স 5-6 মিনিটের মধ্যে ধীরে ধীরে সম্পূর্ণ কালো হয়ে যায়। সূর্যের আলো থেকে সরিয়ে নিলে প্রায় 2 মিনিটের মধ্যে সেই লেন্স আবার সাদা বা স্বচ্ছ হতে শুরু করে। 15 থেকে 20 মিনিট পরে একদম আগের অবস্থায় ফিরে যায়।

অবশ্য ফটোক্রোমাটিক লেন্সের এই রূপান্তর পারিপার্শ্বিক তাপমাত্রার উপর নির্ভরশীল। কাঁচ এবং প্লাস্টিকের লেন্সের ক্ষেত্রে রং পরিবর্তনের সময়ের কিছুটা তারতম্য লক্ষ্য করা যায়।

প্লাস্টিক না কাচ, কোন ফটোক্রোমাটিক লেন্স বেশি ভালো?

অনেকেই জানতে চান কোন ফটোক্রোমাটিক লেন্স বেশি কার্যকরী। প্লাস্টিক লেন্স পাতলা আর এতে Silver ক্রিস্টালগুলি উপরের দিক (Surface) সমান ভাবে ছড়ানো থাকে। ফলে আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মির প্রভাবে লেন্সের রঙের পরিবর্তন সমানভাবে হয়। কিন্তু কাঁচের লেন্স বেশি মোটা বা পুরু হয়। ক্রিস্টালগুলি কাঁচের ভিতরের দিকে অসমানভাবে বসানো থাকে। সেজন্য রঙের পরিবর্তনও হয় অসমান বা বিক্ষিপ্তভাবে। চশমার পাওয়ার যত বেশি হয়, কাঁচও তত মোটা হয় এবং ফটোক্রোমাটিকের কার্যকারিতা ততই কম হয়।

ফটোক্রোমাটিক লেন্সের উপকারিতা

UV রশ্মি থেকে সুরক্ষা: সূর্যের আলোর আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি চোখের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর। এর ফলে চোখের নানা সমস্যা এমনকি অন্ধত্বও দেখা দিতে পারে। ফটোক্রোমাটিক লেন্স চোখকে UV রশ্মি থেকে সম্পূর্ণ রক্ষা করে। সূর্যের আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি ছানির অন্যতম কারণ। যাদের রৌদ্রে বেশি ঘোরাঘুরি করতে হয়, এমনকি স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদেরও ফটোক্রোমাটিক চশমা পরলে ভবিষ্যতে ছানির সম্ভাবনা কমে যায়।

স্বাচ্ছন্দ্য : একটি মাত্র ফটোক্রোমাটিক লেন্সের চশমা ঘরে এবং বাইরে দুই কাজেই ব্যবহার করা যায়। দুটি আলাদা চশমা (একটি সাধারণ ও একটি রোদ চশমা) থাকলে, বাইরের কাজের সময় বারবার চশমা বদল করতে হয়। এছাড়াও বেরোবার সময় সানগ্লাস সঙ্গে নিয়ে যেতে ভুলে গেলে সমস্যা হতে পারে।

অর্থ সাশ্রয় : ফটোক্রোমাটিক লেন্সের চশমা তৈরি করলে বাইরে কাজের জন্য আলাদা সানগ্লাস কেনার আর দরকার হয় না। একটাতেই দুই কাজ হয়ে যায়, ফলে যথেষ্ট অর্থ সাশ্রয় হয়।

ফটোক্রোমাটিক লেন্সের অসুবিধা

প্রতিক্রিয়া সময় (Reaction Time) : যদিও সূর্যের আলোয় ফটোক্রোমাটিক চশমা খুব তাড়াতাড়ি সানগ্লাসের মত ধূসর বা কালো হয়ে যায়। কিন্তু ছায়ায় এর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে অর্থাৎ স্বচ্ছ হয়ে যেতে অনেক সময় লাগে, বিশেষত শীতকালে বা ঠাণ্ডা আবহাওয়ায়। সেজন্য বাইরে থেকে ঘরে ঢুকলে প্রথম কিছুক্ষণ যথেষ্ট অসুবিধা হয়।

গাড়ি চালানো (Driving): বেশিরভাগ মোটর গাড়ির কাঁচ (জানলা এবং উইন্ডস্ক্রিন) আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি প্রতিরোধক। সূর্যের আলোর আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মিই ফটোক্রোমাটিক লেন্সকে কার্যকরী করে। সেই জন্য গাড়ির ভিতরে আলো থাকলেও আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি অভাবে চশমাটি সানগ্লাসের কাজ করতে পারে না।

যথেষ্ট কালো নয়: ফটোক্রোমাটিক চশমা অন্যান্য সানগ্লাসের মত যথেষ্ট কালো হতে পারে না। আবার কালো হওয়ার মাত্রা ভিন্ন তাপমাত্রার উপর নির্ভর করে। যাঁদের চোখ বেশি আলোকসংবেদী অর্থাৎ যাঁরা বেশি আলো সহ্য করতে পারেন না, তাদের পক্ষে ফটোক্রোমাটিক চশমার পরিবর্তে সাধারণ সানগ্লাসই পরা উচিত।

তাপমাত্রার নির্ভরতা (Temperature Dependency):

আগেই উল্লেখ করা হয়েছে, ফটোক্রোমাটিক লেন্সের কালো হবার ক্ষমতা পারিপার্শিক তাপমাত্রার উপর নির্ভর করে। গরমের দিনে এগুলি সর্বাধিক 90 শতাংশ কালো হতে পারে। আবার ঠাণ্ডায় এই লেন্স অতিরিক্ত কালো হয়ে যায়। আর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে অনেক সময় লাগে।

গাড়ি চালানোর উপযোগী ফটোক্রোমাটিক লেন্স:

গাড়ির কাঁচ আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি প্রতিরোধক হবার কারণে গাড়ি চালানোর সময় ফটোক্রোমাটিক লেন্স সানগ্লাসের কাজ করতে পারে না। তখন উজ্জ্বল আলোয় চালকের যথেষ্ট অসুবিধা হয়। এজন্য Transition Driveware Lens নামে একধরনের বিশেষ ফটোক্রোমাটিক লেন্স আবিষ্কৃত হয়েছে। এই লেন্স UV রশ্মি ছাড়াও কেবলমাত্র দিনের আলোতেই সানগ্লাসের মত কাজ করতে পারে। এগুলি ফটোক্রোমাটিক এবং পোলারাইজেশন (Polarization) প্রযুক্তিতে তৈরি। এই ধরনের লেন্সের চশমা একমাত্র গাড়ি চালানোর সময়ই ব্যবহার করা হয়।

চোখের চিকিৎসায় ফটোক্রোমাটিক লেন্সের ব্যবহার :

অনেক ক্ষীণদৃষ্টি সম্পন্ন রোগী যাঁরা ম্যাকুলার ডিজেনারেশন জাতীয় অসুখে ভুগছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে বিশেষ ধরনের ফটোক্রোমাটিক লেন্স (Corning’s CPF) ব্যবহার করে দৃষ্টির কিছুটা উন্নতি করা সম্ভব। এই লেন্স আলোর কিছু নির্দিষ্ট তরঙ্গকে (565-700 তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের সবুজ-হলুদ) প্রতিহত করে চোখের ম্যাকুলাকে রক্ষা করে। চামড়ায় আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মির প্রভাব থেকে রক্ষা পেতে অনেকেই নানা ধরণের ক্রিম ব্যবহার করেন। তেমনিই চোখের দৃষ্টিকে রক্ষা করতে সকলেরই ফটোক্রোমাটিক চশমা বা সানগ্লাস পরা উচিত। ছানি প্রতিরোধের জন্যও চিকিৎসকেরা ফটোক্রোমাটিক চশমা ব্যবহার করতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

ফটোক্রোমাটিক চশমায় সাধারণ চশমার চাইতে কি ভালো দেখা যায়?

এটা প্রমাণিত যে ফটোক্রোমাটিক লেন্সের চশমা ব্যবহার করলে, ঘরে কিম্বা বাইরে, সাধারণ চশমার চাইতে অনেক ভালো দেখা যায়। কারণ ফটোক্রোমাটিক লেন্স আলোর উজ্জ্বলতার সঙ্গে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিয়ে আলোর ঝকঝকে ভাবকে (Glare) স্তিমিত করে। দৃশ্যবস্তুর Brightness ও Contrast-কে নিয়ন্ত্রণ করে আরও ভালোভাবে দেখতে সাহায্য করে।

আমাদের পাশে থাকুন

আমজনতাই আমাদের চালিকা শক্তি। আপনার সামান্য অনুদান আমাদের চলার পথে সাহস জোগাতে পারে।

ইচ্ছুকরা এই অ্যাকাউন্টে অনুদান পাঠাতে পারেন :
Bank Name : Bank of Baroda
A/C Name : Kolkata News Today
A/C No. 30850200000526
IFSC Code : BARB0MADHYA

GSTIN : 19AJEPM5512C1ZI
Email : kolkatanewstoday@gmail.com

সবাই যা পড়ছেন

Ghatal : জলে ভাসছে ঘাটালের বিস্তীর্ণ অংশ, দুর্গত এলাকায় সুব্রত মুখার্জি

বিশেষ প্রতিনিধি : ২ দিনের টানা বর্ষণে প্লাবিত হয়ে পড়েছে ঘাটাল (Ghatal), দাসপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা। এই নজিরবিহীন বিপর্যয়ের জন্য কেন্দ্রকে দায়ী করেছেন...

Babul BJP : ফের ডিগবাজি বাবুলের, বললেন, “রাজনীতি ছাড়ছি, তবে সাংসদ থাকছি”

ফের ডিগবাজি বিজেপি (BJP) সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র (Babul Supriya)। রাজনীতি এবং সাংসদ পদ ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন বাবুল। সোমবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি...

East Bengal : আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গল, সমর্থকদের স্বস্তি দিয়ে ঘোষণা মমতার

লক্ষ লক্ষ ইস্টবেঙ্গল (East Bebgal) সমর্থকের মুখে হাসি ফুটিয়ে স্বস্তির বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। যাবতীয় বিতর্ক দূরে সরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী...

Kolkata : দাঁড়িয়ে বর্ষার জল, ম্যানহোলের ভিতরে মিলল বালির বস্তা, লেপ, তোষক

বৃষ্টির পর ২ দিন কেটে গেলেও কলকাতার বিভিন্ন এলাকা এখনও জলে ভাসছে। এর মধ্যেই রবিবারম্যানহোলে মিলল বালির বস্তা, ইট, লেপ তোষক। ড্রেন...

Olympic Sindhu : পরপর দুই অলিম্পিকে পদক, অনন্য নজির সিন্ধুর

পরপর দুটি অলিম্পিকে (Olympic) পদক জয়ের নজির গড়লেন পি ভি সিন্ধু (P V Sindhu)। গত অলিম্পিকে জিতেছিলেন রুপো। এবার টোকিও অলিম্পিকে জিতলেন...